প্রবাস থেকে আমার আত্মকথন : মুন্নি ভুঁইয়া

40

এখানে আসতে চাইনি ।
আমার প্রিয় জন্মভূমি , আমার মলিন ধূলো ধূসরিত প্রানের শহর , আমার শৈশব কৈশোর যৌবনে বেড়ে উঠা , দাপিয়ে বেড়ানো শহর ঢাকা । সেই শহর , চিরচেনা মুখগুলো , আপনজন , বন্ধু বান্ধব সবাইকে পিছনে ফেলে সত্যিই আমি আসতে চাইনি ।

ভাইয়া বলেছিলো , এটা রাণীর দেশ । প্রত্যেকটা মেয়ে এক একেকটা রাণী । তুই রাণীর মতোই পথ চলবি । চলে আয় …

এসে দেখলাম আসলেই এ শহরের মেয়েরা রাণী । স্বাধীন নিরাপদ নিশ্চিন্তে এরা পথ চলে সেটা যতো গভীর রাত হোক !
আসার পর থেকে আজ পর্যন্ত কোনোদিন রাত দিন চব্বিশ ঘন্টা বাইরে বের হয়ে নিরাপদে ঘরে ফিরতে পারবো না এ শংকা আজও মনে আসেনি অথচ এটা কাফেরদের দেশ ।

বেশ কয়েক বছর আগে একদিন ভুলবশত: ইমার্জেন্সিতে কল চলে যায় । কয়েক মিনিটের মধ্যে সঙ্গে সঙ্গে রিপ্লাই আসে আমরা কয়েক মিনিটের মধ্যে তোমার কাছে পৌছে যাচিছ , তুমি ঠিক আছো ?
আমি আওয়াজ শুনে ভাবলাম , সর্বনাশ ! এটা কি হয়েছে ?
সঙ্গে সঙ্গে এটা সমাধান করলাম নয়তো কয়েক মিনিটের মধ্যে ওরা লোকেশন ট্যাগ করে আমার কাছে ফোর্স নিয়ে চলে আসতো ।
হ্যা , এতোটাই নিরাপদ এখানে মেয়েরা ।

কেনো জানেন ?
কারন এসব দেশে আইন শুধু কাগজে কলমে রচিতই হয় না বরং জনগনের সুরক্ষার জন্য তা কঠোর হাতে প্রয়োগও করা হয় ।
এদেশের মানুষ হয়তো তার পরিবারকে ততোটা মান্য করে না কিংবা ভয় পায় না যতোটা দেশের আইনকে ভয় পায় , মান্য করে ।

ভেবেছিলাম এটা নিয়ে লিখবো না ।
কি হবে লিখে ?
আজ এক যুগ ধরেই তো চলছে ।
এমনকি ধর্ষন শেষে নির্মমভাবে হত্যা পর্যন্ত করছে ।

সন্তানের সামনে মা’কে , ভাইয়ের সামনে বোনকে , স্বামীর সামনে স্ত্রীকে বরবাদ করে দিচেছ ।
মেরুদন্ডহীন মানুষজগুলো যেমন প্রতিবাদের ভাষা হারিয়ে ফেলেছে তেমনি কোনো এক অদৃশ্য ইশারায় লীগের লোক হলে আইন আদালত সব স্তব্ধ হয়ে যাচেছ ।
দেশের আইন আদালতে কোথাও কোনো বিচার নেই ।
কিন্তু সবচেয়ে ভয়ংকর ব্যাপার হচ্ছে প্রতিটা ধর্ষনেই আজ পর্যন্ত যতোগুলো ছেলে ধরা পড়েছে সবাই সোনার ছেলে আর সবাই চেতনার আদর্শে লালিত ।

আজ চোখ বন্ধ করলে অসহায় আদিবাসী মেয়েটার বাবা মায়ের কাঁধে ভর করে রক্তাক্ত দেহে ছেচড়ে যাবার দৃশ্যটা চোখে ভাসছে আমার !
বাবা মায়ের চোখের সামনে এই দৃশ্য , ভাবা যায় ?
কতোটা অসহায় হলে এভাবে নীরবে হেটে চলে যেতে হয় প্রতিবাদহীন হয়ে ?
এই মেয়েটা তো আমার কোনো আপনজন কিংবা আমি ও হতে পারতাম !
কিংবা যে মেয়েটা স্বামীর সামনে ধর্ষিতা হলো ?
আর ভাবতে পারছি না !

স্রষ্টার কাছে লাখ লাখ শোকরিয়া ঐ জানোয়ারে ভরা দেশ থেকে , মেরুদন্ডহীন পরগাছা মানুষগুলো থেকে , পক্ষপাত দুষ্টু আইন আদালতের মিথ্যে নাটক থেকে দূরে বহুদূরে চলে এসেছি ।

কিন্তু যারা আসতে পারেনি ?
আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা ছাড়া আমাদের মতো অসহায় মানুষদের কি বা করার আছে ?
আমাদের বিবেক মরে গেছে ।
আল্লাহ আমাদের নারীদের সুরক্ষা দেবার যে দায়িত্ব আমাদের পুরুষদের দিয়েছিলেন আমাদের পুরুষেরা সে দায়িত্ব রক্ষা করতে ভুলে গেছেন ।

হে প্রভু ক্ষমা করো !
রক্ষা করো , ভালো রেখো সকল মা বোনদের। আমাদের যে আর কোনো পথ খোলা নেই !